Utpal Dutt

"আমি নিজেকে শিল্পী মনে করিনা, আমি একজন প্রপাগান্ডিস্ট" - উৎপল দত্ত স্মরণে

"It is the cause, it is the cause, my soul,--
Let me not name it to you, you chaste stars!--
It is the cause. Yet I'll not shed her blood;
Nor scar that whiter skin of hers than snow,
And smooth as monumental alabaster.
Yet she must die, else she'll betray more men.
Put out the light, and then put out the light:
If I quench thee, thou flaming minister,
I can again thy former light restore,
Should I repent me: but once put out thy light,
Thou cunning'st pattern of excelling nature,
I know not where is that Promethean heat
That can thy light relume. When I have pluck'd the rose,
I cannot give it vital growth again.
It must needs wither: I'll smell it on the tree."........ বাংলা চলচিত্রের সংলাপে এই ক্লাসিকের ব্যাবহার করতে গিয়ে তার কণ্ঠস্বর ব্যাতিত অন্য কোন কিছু ভাবতেই পারেন নি পরিচালক।

তিনি নিজেও নাট্যকার ছিলেন, ছিলেন নাট্য নির্দেশক, অভিনেতা এবং ভারতে নাট্য আন্দোলনের একজন কিংবদন্তী। ভারতীয় গণনাট্য সংঘের অন্যতম একজন প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ছিলেন। পড়াশোনা করেন শিলঙের সেন্ট এডমুন্ড'স স্কুলে, পরে কলকাতার সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ থেকে ইংরেজি সাহিত্যে সাম্মানিক স্নাতক হন। চাকরি করেছেন সাউথ পয়েন্ট স্কুলের ইংরেজির শিক্ষক হিসাবে।

তিনি উৎসাহীদের সাথে নিয়ে গড়ে তোলেন "The Shakespeareans" নামে একটি দল - সময়কাল ১৯৪৭। ব্রেটল্ট ব্রেখটের নাট্যধারা তাকে ভীষণরকম প্রভাবিত করেছিল, নিজের নাট্যদলের নাম রেখেছিলেন এপিক থিয়েটার। থিয়েটারে ওথেলো চরিত্রে তার অভিনয় দেখে প্রখ্যাত চলচিত্র পরিচালক মধু বসু তাকে মাইকেল মধুসূদন দত্তের ভূমিকায় চলচিত্রে অভিনয়ের সুযোগ দেন। বহু হিন্দি এবং বাংলা সিনেমায় অভিনয় করেছেন, ১৯৭০ সালে পরিচালক মৃণাল সেনের ভূবন সোম সিনেমায় অভিনয় করে জাতীয় পুরস্কার পান। ১৯৯০ সালে সঙ্গীত নাট্য আকাদেমি পুরস্কার পান থিয়েটারে তার অবদানের জন্য। তার নাটকগুলীর মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য থিয়েটারগুলি হল কল্লোল, টিনের তলোয়ার, ফেরারি ফৌজ এবং অঙ্গার। আজও তার নাটক বারে বারে অভিনীত হয়ে চলেছে নতুন পরিচালক, অভিনেতাদের হাত ধরে।

উৎপল দত্তের সারাজিবনের পরিচয় শুধুই নাটক কিংবা চলচিত্রে তার কৃতিত্বের জন্য নয় - নাট্য আন্দোলনের একজন অগ্রগামী সেনানি উৎপল দত্ত ছিলেন একজন কমিউনিস্ট সংস্কৃতির মানুষ। তার গোটা জীবনের কাজ সেই পরিচয় ব্যাক্ত করে। কমিউনিস্ট মতবাদের প্রচারে বই লিখেছেন - তার লেখা "প্রতিবিপ্লব - সোভিয়েত ইউনিয়ন অবলুপ্তির কাহিনী" আজও সবার জন্য একটি অবশ্যপাঠ্য বই। এছাড়াও তার লেখা প্রবন্ধ সিরিজ "জপেনদা" একটি অনন্য বামপন্থী সাহিত্যকীর্তি।

pratibiplob
Pic Source: CPI(M) Web Desk

নিজের পরিচয় দিতেন "আমি নিজেকে শিল্পী মনে করিনা, আমি একজন প্রপাগান্ডিস্ট" বলে।

এই মানুষটিরই আজ মৃত্যুদিন, ১৯৯৩ সালের ১৯ অগাস্ট তার মৃত্যু হয়, কলকাতায়।

Pic Source: Social Media


শেয়ার করুন

উত্তর দিন