মোদী জমানায় ডিজেলের দাম সর্বকালের সর্বোচ্চ মাত্রা ছুঁল

May 23rd, 2019 [IST]

পেট্রোল-ডিজেলের দাম ফের একধাপ বেড়ে তৈরি করল নতুন নজির। ডিজেলের দাম সর্বকালের সর্বোচ্চ মাত্রায় পৌঁছে গেল। রাজধানী দিল্লিতে ডিজেলের দাম লিটারপ্রতি দাম দাঁড়ালো ৬৪.৫৮ টাকা। কলকাতায় তা আরও বেশি - ৬৭.২৭ টাকা। মুম্বাইয়ে ৬৮.৭৭ টাকা, চেন্নাইয়ে ৬৮.১২ টাকা। পেট্রোলের দাম গত চার বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ স্তরে পৌঁছালো। দিল্লিতে রবিবার থেকে লিটারপ্রতি পেট্রোলের দাম হয়েছে ৭৩.৭৩ টাকা। কলকাতায় ৭৬.৪৪ টাকা, মুম্বাইয়ে ৮১.৫৯ টাকা, চেন্নাইয়ে ৭৬.৪৮ টাকা।

মোদী সরকারের আমলে পেট্রোপণ্যের দাম বেড়েই চলেছে। প্রতিক্রিয়ায় বাড়ছে পরিবহণ ও সংশ্লিষ্ট অনেক ক্ষেত্রেই ব্যয়। সামগ্রিক ভাবে জিনিসের দরদাম বৃদ্ধির অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে পেট্রোপণ্যের চড়া দাম।

তেল কোম্পানিগুলি গত বছরের জুন থেকে প্রতিদিনই পেট্রোপণ্যের দাম নির্ধারণ করছে। রবিবার পেট্রোল ও ডিজেলে এই দাম বেড়েছে লিটারপ্রতি ১৮ থেকে ২৫ পয়সা। দিল্লিতে ১৮ পয়সা বাড়ার পরে পেট্রোলের দাম যেখানে পৌঁছেছে তা চার বছরে সর্বোচ্চ। মুম্বাই, কলকাতা, চেন্নাইসহ অধিকাংশ বড় শহরেই দাম দিল্লির দামের থেকে বেশি। দিল্লির হিসাবে এ বছরের ৭ই ফেব্রুয়ারি ডিজেলের দাম ছিল ৬৪.২২ টাকা। রবিবারের আগে পর্যন্ত এটিই ছিল সর্বোচ্চ দাম। তা রবিবার ভেঙে দিয়েছে অতীতের সব নজিরই। ঠিক একইভাবে কলকাতাসহ বড় শহরগুলিতে ডিজেলের দাম বেনজির মাত্রায় পৌঁছে গেল।

দক্ষিণ এশিয়ায় ভারতেই পেট্রোল-ডিজেলের দাম সবচেয়ে বেশি। পেট্রোপণ্যের দাম বৃদ্ধির অন্যতম কারণ পেট্রোপণ্যের ওপরে শুল্ক। দামের প্রায় অর্ধেকই কর। ২০১৪-র নভেম্বর থেকে ২০১৬-র জানুয়ারির মধ্যে অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি ৯ বার পেট্রোপণ্যের শুল্ক বাড়িয়েছিলেন। সেই সময়ে আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম কমছিল। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার কর চাপাতে থাকায় দাম হ্রাসের সুফল ব্যবহারকারীদের কাছে পৌঁছায়নি। ওই ১৫ মাসে ৯ বারে পেট্রোলের ওপরে শুল্ক বেড়েছে ১১.৭৭ টাকা, ডিজেলের ওপরে বেড়েছে ১৩.৪৭ টাকা।

জেটলি শুল্ক কমিয়েছেন একবারই। ২০১৭-র অক্টোবরে লিটারপ্রতি ২ টাকা করে শুল্ক কমিয়েছিলেন তিনি। তখন রাজ্যগুলিকেও শুল্ক কমানোর পরামর্শ দিয়েছিলেন তিনি। মহারাষ্ট্র, গুজরাট, মধ্য প্রদেশ, হিমাচল প্রদেশ ছাড়া কোনও রাজ্যই শুল্ক কমায়নি।

চলতি বছরের কেন্দ্রীয় বাজেটের আগে কেন্দ্রের পেট্রোলিয়াম মন্ত্রক অর্থ মন্ত্রককে শুল্ক কমানোর অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দেয়। জেটলি কর্ণপাত করেননি। যদিও ওই চিঠি নেহাতই লোক দেখানো ছিল বলে অভিযোগ।

আগে নিয়ম ছিল প্রত্যেক মাসের ১লা ও ১৬ই দাম সংশোধন করার। গত বছরের জুন থেকে প্রতিদিনই দাম সংশোধনের নিয়ম চালু হয়। প্রায় প্রত্যেক দিনই দাম বৃদ্ধি করা হচ্ছে। কলকাতায় পেট্রোলের দাম মার্চ মাসে বেড়েছে ১.৯৪ টাকা। ডিজেলের দাম ১লা মার্চের থেকে ৩১শে মার্চ বেড়েছে ২.১৫ টাকা।

এদিন পেট্রোল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির তীব্র নিন্দা করেছেন সি পি আই (এম)-র সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। তিনি বলেছেন, এ কোনও এপ্রিল ফুলের রসিকতা নয়। অশোধিত তেলের দাম যখন সর্বকালের সর্বোচ্চ দামের অর্ধেক, তখন ভারতীয়রা ডিজেলে সর্বকালের সর্বোচ্চ দাম দিচ্ছেন। পেট্রোলের দামও চার বছরে সর্বোচ্চ। মোদীর তামাশা ও বিজ্ঞাপনের খরচ জোগানোর কর দিচ্ছেন ভারতীয় জনগণ।